Surah Takwir (81) The over throwing

Surah Takwir

Assalamu walaikum brothers and sisters, if you want to know about Surah Takwir or you want to know the Surah Takwir in English or Surah Takwir in Bangla then you are in the right place. Here we learn about the  meaning of  Surah Takwir in three different languages Insallah.

Surah Takwir



Surah Takwir in Arabic

بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ
 إِذَا الشَّمْسُ كُوِّرَتْ
 وَإِذَا النُّجُومُ انْكَدَرَتْ
 وَإِذَا الْجِبَالُ سُيِّرَتْ
 وَإِذَا الْعِشَارُ عُطِّلَتْ
 وَإِذَا الْوُحُوشُ حُشِرَتْ
 وَإِذَا الْبِحَارُ سُجِّرَتْ
 وَإِذَا النُّفُوسُ زُوِّجَتْ
 وَإِذَا الْمَوْءُودَةُ سُئِلَتْ
 بِأَيِّ ذَنْبٍ قُتِلَتْ
 وَإِذَا الصُّحُفُ نُشِرَتْ
 وَإِذَا السَّمَاءُ كُشِطَتْ
 وَإِذَا الْجَحِيمُ سُعِّرَتْ
 وَإِذَا الْجَنَّةُ أُزْلِفَتْ
 عَلِمَتْ نَفْسٌ مَا أَحْضَرَتْ
 فَلَا أُقْسِمُ بِالْخُنَّسِ
 الْجَوَارِ الْكُنَّسِ
 وَاللَّيْلِ إِذَا عَسْعَسَ
 وَالصُّبْحِ إِذَا تَنَفَّسَ
 إِنَّهُ لَقَوْلُ رَسُولٍ كَرِيمٍ
 ذِي قُوَّةٍ عِنْدَ ذِي الْعَرْشِ مَكِينٍ
 مُطَاعٍ ثَمَّ أَمِينٍ
 وَمَا صَاحِبُكُمْ بِمَجْنُونٍ
 وَلَقَدْ رَآهُ بِالْأُفُقِ الْمُبِينِ
 وَمَا هُوَ عَلَى الْغَيْبِ بِضَنِينٍ
 وَمَا هُوَ بِقَوْلِ شَيْطَانٍ رَجِيمٍ
 فَأَيْنَ تَذْهَبُونَ
 إِنْ هُوَ إِلَّا ذِكْرٌ لِلْعَالَمِينَ
 لِمَنْ شَاءَ مِنْكُمْ أَنْ يَسْتَقِيمَ
 وَمَا تَشَاءُونَ إِلَّا أَنْ يَشَاءَ اللَّهُ رَبُّ الْعَالَمِينَ

Surah Takwir in English

Meccan Surah ; Verse: 29;  Section: 1

In the name of Allah, Most Gracious, Most Merciful.

When the sun (with its spacious light) is folded up;

When the stars fall, losing their luster;

When the mountains vanish (like a mirage);

When the she-camels, ten months with young, are left untended;

When the wild beasts are herded together (in the human habitations);

When the oceans boil over with a swell;

When the souls are sorted out, (being joined, like with like);

When the female (infant), buried alive, is questioned

For what crime she was killed;

When the scrolls are laid open;

When the world on High is unveiled;

When the Blazing Fire is kindled to fierce heat;

And when the Garden is brought near;

(Then) shall each soul know what it has put forward.

So verily I call to witness the planets - that recede,

Go straight, or hide;

And the Night as it dissipates;

And the Dawn as it breathes away the darkness;

Verily this is the word of a most honorable Messenger,

Endued with Power, with rank before the Lord of the Throne,

With authority there, (and) faithful to his trust.

And (O people!) your companion is not one possessed;

And without doubt he saw him in the clear horizon.

Neither doth he withhold grudgingly knowledge of the Unseen.

Nor is it the word of an evil spirit accursed.

When whither go you?

Verily this is no less than a Message to (all) the Worlds:

(With profit) to whoever among you wills to go straight:

But you shall not will except as Allah wills,- the Cherisher of the Worlds.

 

 <<Previous Surah>>           << Home Page>>              <<Next Surah>>

Surah Takwir in Bangla

মাক্কী সূরা ;  আয়াত :15  ; রুকু :1

পরম করুণাময় অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে

যখন সূর্যকে গুটিয়ে ফেলা হবে;

যখন তারাগুলাে সব খসে পড়বে;

যখন পর্বতমালাকে (আপন স্থান থেকে) সরিয়ে দেয়া হবে;

যখন দশ মাসের গর্ভবতী উটনীকে নিজের অবস্থার ওপর ছেড়ে দেয়া হবে,

যখন হিংস্র জন্তুগুলােকে এক জায়গায় একত্রিত করা হবে

যখন সাগরসমূহকে (আগুন দ্বারা) প্রজ্বলিত করা হবে

যখন (কবর থেকে উখিত) প্রাণসমূহকে (তাদের নিজ নিজ) দেহের সাথে জুড়ে দেয়া হবে

যখন সদ্যপ্রসূত মেয়েটি জিজ্ঞাসিত হবে

কোন অপরাধে তাকে হত্যা করা হয়েছিলাে,

যখন আমলের নথিপত্র খােলা হবে;

যখন আসমান খুলে দেয়া হবে;

যখন দোযখ প্রজ্বলিত করা হবে;

যখন বেহেশতকে (মানুষের) কাছে নিয়ে আসা হবে

প্রত্যেক ব্যক্তিই (তখন) জানতে পারবে সে কি নিয়ে (আল্লাহ পাকের। কাছে) উপস্থিত হয়েছে। 

কসম সেসব তারকাপুঞ্জের যা (চলতে চলতে) গা ঢাকা দেয়

(আবার) যা (মাঝে মাঝে) অদৃশ্য হয়ে যায়;

কসম রাতের যখন তা নিঃশেষ হয়ে যায়;

(কসম) সকাল বেলার যখন তা (দিনের আলােয়) নিশ্বাস নেয়;

কোরআন হচ্ছে একজন সম্মানিত ( মর্যাদাসম্পন্ন) বাহকের (মাধ্যমে পৌছানাে) বাণী

সে বড় শক্তিশালী, আরশের প্রভু আল্লাহ পাকের কাছে তার অবস্থান (অনেক মর্যাদাপূর্ণ),

যেখানে তাকে মান্য করা হয়, (অতঃপর) সে সেখানে গভীর আস্থাভাজনও

তােমাদের সাথী (কিন্তু) পাগল নয়,

সে তাকে স্বচ্ছ দিগন্তে দেখেছে,

অদৃশ্য জাতের ব্যাপারে তিনি কখনাে কার্পণ্য করেন না,

এটা কোনাে অভিশপ্ত শয়তানের কথাও নয়,

অতএব, তােমরা (কোরআন থেকে মুখ ফিরিয়ে) কোন দিকে যাচ্ছাে?

এটা সৃষ্টিকুলের জন্যে এক উপদেশ বৈ কিছুই নয়,

যে সঠিক পথ ধরে চলতে চায় (এটি শুধু) তার জন্যেই (উপদেশ),

(আসলে) তােমরা তাে কিছুই চাইতে পারাে না, হ্যা চাইতে পারেন একমাত্র আল্লাহ পাক, যিনি সৃষ্টিকুলের

প্রভু

 <<Previous Surah>>           << Home Page>>              <<Next Surah>>

*Inspired by the book of Abdullah Yusuf Ali
Post a Comment (0)
Previous Post Next Post