Surah Fajr (89) The Dawn

Surah Fajr (89) -The Dawn

Assalamu walaikum brothers and sisters, if you want to know about Surah Fajr or you want to know the Surah Fajr in English or Surah Fajr in Bangla then you are in the right place. Here we learn about the  meaning of  Surah Fajr in three different languages Insallah.


Surah Fajr



Surah Fajr in Arabic

بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ
 وَالْفَجْرِ
 وَلَيَالٍ عَشْرٍ
وَالشَّفْعِ وَالْوَتْرِ
 وَاللَّيْلِ إِذَا يَسْرِ
 هَلْ فِي ذَٰلِكَ قَسَمٌ لِذِي حِجْرٍ
 أَلَمْ تَرَ كَيْفَ فَعَلَ رَبُّكَ بِعَادٍ
 إِرَمَ ذَاتِ الْعِمَادِ
 الَّتِي لَمْ يُخْلَقْ مِثْلُهَا فِي الْبِلَادِ
 وَثَمُودَ الَّذِينَ جَابُوا الصَّخْرَ بِالْوَادِ
 وَفِرْعَوْنَ ذِي الْأَوْتَادِ
 الَّذِينَ طَغَوْا فِي الْبِلَادِ
 فَأَكْثَرُوا فِيهَا الْفَسَادَ
 فَصَبَّ عَلَيْهِمْ رَبُّكَ سَوْطَ عَذَابٍ
 إِنَّ رَبَّكَ لَبِالْمِرْصَادِ
 فَأَمَّا الْإِنْسَانُ إِذَا مَا ابْتَلَاهُ رَبُّهُ فَأَكْرَمَهُ وَنَعَّمَهُ فَيَقُولُ رَبِّي أَكْرَمَنِ
 وَأَمَّا إِذَا مَا ابْتَلَاهُ فَقَدَرَ عَلَيْهِ رِزْقَهُ فَيَقُولُ رَبِّي أَهَانَنِ
 كَلَّا ۖ بَلْ لَا تُكْرِمُونَ الْيَتِيمَ
 وَلَا تَحَاضُّونَ عَلَىٰ طَعَامِ الْمِسْكِينِ
 وَتَأْكُلُونَ التُّرَاثَ أَكْلًا لَمًّا
 وَتُحِبُّونَ الْمَالَ حُبًّا جَمًّا
 كَلَّا إِذَا دُكَّتِ الْأَرْضُ دَكًّا دَكًّا
 وَجَاءَ رَبُّكَ وَالْمَلَكُ صَفًّا صَفًّا
 وَجِيءَ يَوْمَئِذٍ بِجَهَنَّمَ ۚ يَوْمَئِذٍ يَتَذَكَّرُ الْإِنْسَانُ وَأَنَّىٰ لَهُ الذِّكْرَىٰ
 يَقُولُ يَا لَيْتَنِي قَدَّمْتُ لِحَيَاتِي
 فَيَوْمَئِذٍ لَا يُعَذِّبُ عَذَابَهُ أَحَدٌ
 وَلَا يُوثِقُ وَثَاقَهُ أَحَدٌ
 يَا أَيَّتُهَا النَّفْسُ الْمُطْمَئِنَّةُ
 ارْجِعِي إِلَىٰ رَبِّكِ رَاضِيَةً مَرْضِيَّةً
 فَادْخُلِي فِي عِبَادِي
 وَادْخُلِي جَنَّتِي

Surah Fajr in English

Meccan Surah ; Verse: 30;  Section: 1

In the name of Allah, Most Gracious, Most Merciful.

By the break of Day

By the ten Nights;

By the even and odd (contrasted);

And by the Night when it passed away;

Is there (not) in these an adjuration (or evidence) for those who understand?

Seest you not how your Lord dealt with the Ad (people),

Of the (city of) Iram, with lofty pillars,

The like of which were not produced in (all) the land?

And with the Thamud (people), who cut out (huge) rocks in the valley?

And with Pharaoh, lord of stakes?

(All) these transgressed beyond bounds in the lands,

And heaped therein mischief (on mischief).

Therefore did your Lord pour on them a scourge of diverse chastisements:

For your Lord is (as a Guardian) on a watch-tower.

Now, as for man, when his Lord tries him, giving him honor and gifts, then saith he, (puffed up), "My Lord hath honored me."

But when He tries him, restricting his subsistence for him, then saith he (in despair), "My Lord hath humiliated me!"

Nay, nay! but you honor not the orphans!

Nor do you encourage one another to feed the poor!

And you devour inheritance - all with greed,

And you love wealth with inordinate love!

Nay! When the earth is pounded to powder,

And your Lord comes, and His angels, rank upon rank,

And Hell, that Day, is brought (face to face),- on that Day will man remember, but how will that remembrance profit him?

He will say: "Ah! Would that I had sent forth (good deeds) for (this) my (Future) Life!"

For, that Day, His Chastisement will be such as none (else) can inflict,

And His bonds will be such as none (other) can bind.

(To the righteous soul will be said:) "O (you) soul, in (complete) rest and satisfaction!

"Come back you to your Lord,- well pleased (yourself), and well-pleasing unto Him!

"Enter you, then, among My devotees!

"Yes, enter you My Heaven!

  <<Previous Surah>>                             <<Home>>                            <<Next Surah>> 

Surah Fajr in Bangla

মাক্কী সূরাআয়াত :30  ; রুকু :1

পরম করুণাময় অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে

ভােরের কসম;

কসম দশটি (বিশেষ) রাতের;

কসম জোড় (সৃষ্টি)-এর বিজোড় (স্রষ্টা)-এর;

কসম রাতের যখন তা সহজে বিদায় নিতে থাকে

এর মধ্যে কি বিবেকবান লােকদের জন্যে কোনাে কসম রাখা হয়েছে

আপনি কি দেখেননি, আপনার প্রভুআদ (জাতি)-এর লােকদের সাথে কেমন ব্যবহার করেছেন?

এরামগােত্র (ছিলাে) উঁচু স্তম্ভবিশিষ্ট প্রাসাদের অধিকারী

(জ্ঞান ঐশ্বর্যের দিক থেকে) জনপদে তাদের কাউকেই (এর আগে) সৃষ্টি করা হয়নি?

(উন্নত) ছিলােসামুদ, তারা (পাহাড়ের উপত্যকায়) পাথর কেটে (সুরম্য) অট্টালিকা বানাতাে?

(অত্যাচারী) ফেরাউন- যে কীলক গেঁথে (শান্তি) প্রদানকারী (অত্যাচারী) ছিলাে?

যারা দেশে দেশে (আল্লাহর সাথে) বিদ্রোহ করেছে

তারা তাতে বেশী মাত্রায় (বিপর্যয় ) অশান্তি সৃষ্টি করেছে

অবশেষে আপনার প্রতিপালক তাদের ওপর শাস্তির কোড়ার কষাঘাত হানলেন,

নিশ্চয়ই আপনার প্রভু (এদের ধরার জন্যে) ওঁৎ পেতে রয়েছেন

মানুষরা এমন যে, যখন তার প্রভু তাকে নেয়ামত (অর্থ সম্পদ) সম্মান দিয়ে পরীক্ষা করেন তখন সে বলে, হ্যা, আমার প্রভু আমাকে সম্মানিত করেছেন;

আবার যখন তিনি (ভিন্নভাবে) তাকে পরীক্ষা করেন (এবং এক পর্যায়ে) তার রিযিক সংকুচিত করে দেন, তখন সে (নাখােশ হয়ে) বলে, আমার প্রভু আমাকে অপমান করেছেন

কখনাে নয় (সত্যি কথা হচ্ছে), তােমরা এতীমদের সম্মান করাে না

মিসকীনদের খাওয়ানাের জন্যে তােমরা একে অপরকে উৎসাহ দাও না,

তােমরা মৃত ব্যক্তির (রেখে যাওয়া) ধন-সম্পদ নিজেরাই সব কুক্ষিগত করাে,

বৈষয়িক ধন-সম্পদকে তােমরা গভীরভাবে ভালােবাসাে;

কখনাে নয়, তেমনটি কখনােই উচিত নয় (মনে করাে), যেদিন (সাজানাে) পৃথিবীটাকে চুর্ণ-বিচূর্ণ করে দেয়া হবে  

(সেদিন) আপনার প্রভু স্বয়ং আবির্ভূত হবেন, আর ফেরেশতারা সব সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে থাকবে,

সেদিন দোযখকে (সামনে) নিয়ে আসা হবে, সেদিন প্রতিটি মানুষই (তার পরিণাম) বুঝতে পারবে, কিন্তু (তখন) বােধােদয় তার কী কাজে লাগবে?

সেদিন (হতভাগা) ব্যক্তি বলবে, কত ভালাে হতাে যদি (আজকের) জীবনের জন্যে (কিছুটা ভালাে কাজ) আমি আগে ভাগেই পাঠিয়ে দিতাম

সেদিন আল্লাহ পাক ( বিদ্রোহীদের) এমন শাস্তি দেবেন যা অন্য কেউ দিতে পারবে না,

এবং তার বাঁধনের মতাে বাঁধনেও কেউ (পাপীদের) বাঁধতে পারবে না

(নেককার বান্দাদের বলা হবে,) হে = প্রশান্ত আত্মা,

তুমি তােমার প্রভুর কাছে ফিরে যাও সন্তুষ্টচিত্তে তার প্রিয়ভাজন হয়ে,

অতঃপর তুমি আমার প্রিয় বান্দাদের দলে শামিল হয়ে যাও

(আর) প্রবেশ করাে আমার (অনন্ত) জান্নাতে

<<Previous Surah>>                             <<Home>>                            <<Next Surah>> 

* Inspired by the book of Abdulla Yusuf Ali

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post